দিল্লীতে এই নেতারা করলেন কৃষক আন্দোলন, যেখানে ১ জনও কৃষক নেই! কৃষকদের নামে হাজির মোদী বিরোধী কট্টরপন্থীরা।

বৃহস্পতিবার দিন আরো একবার বামপন্থী,জিহাদি ও কংগ্রেসিরা মিলে কৃষকের নামে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। জানিয়ে দি বৃহস্পতিবার দিন মোদী সরকারের বিরুদ্ধে কৃষক আন্দোলন নামে যে আন্দোলন হয়েছিল সেটা মোটেও কৃষক আন্দোলন ছিল না। মিডিয়া জনগণকে মূর্খ বানিয়ে যেটা কৃষক আন্দোলন বলে প্রচার করছিল সেটা আসলে জিহাদি, কংগ্রেসি, বামপন্থী ও কট্টরপন্থীদের মিলিত একটা প্রদর্শন ছিল মাত্র। কৃষকের নামের আড়ালে এই নেতারা দিল্লিতে জমিয়ে বিরোধ প্রদর্শন করেছে। কৃষক আন্দোলনের নামে এই নেতারা দিল্লীর মধ্যে যানজট করিয়ে মানুষকে সমস্যায় ফেলেছিল।

দেশের বিক্রীত মিডিয়া ঘটনাটিকে পুরোপুরি কৃষক আন্দোলন বলে জনগণের কাছে চালিয়েছিল যদিও আসলে ওই আন্দোলনে একটাও কৃষক ছিল না। এই আন্দোলনে সবকটা বামপন্থী কার্যকর্তা ছিল যারা মনুবাদ মুর্দাবাদের শ্লোগান পর্যন্ত দিচ্ছিল। দিল্লীতে আয়োজিত আন্দোলনের পোল আরো বেশি খুলে গেছিলো যখন নেতারা সন্ধ্যার সময় আন্দোলের পর ভাষণের আয়োজন করে। সন্ধ্যের ভাষণের আয়োজন ও বক্তব্যের মধ্যে পরিষ্কার হয়ে যায় যে এটা পুরোটাই কৃষকদের নাম ব্যাবহার করে রাজনীতি।

যেসব নেতারা দিল্লীতে কৃষক আন্দোলনের জন্য ডাক দিয়েছিল তাদের ছবি উপরে দেখতে পাচ্ছেন। এই নেতাদের মধ্যে রাহুল গান্ধী, ফারুক আব্দুল্লাহ, সীতারাম ইয়েচুরি, ডেনিয়েল রাজা, সাহারাড যাদব ও অরবিন্দ কেজরিওয়াল সামিল ছিলেন। এই আন্দোলনে একটাও কৃষক বা কোনো কৃষক নেতা ছিল না, সবকটা ছিল কংগ্রেসি, বামপন্থী ও জিহাদি। ANI সংস্থার এডিটর স্মিতা প্রকাশ কৃষক রালির নেতাদের পরিস্কার ছবি তুলে পোস্ট করেছেন। যেখানে একটাও কোনো কৃষকনেতা নেই, প্রত্যেকটা মোদী বিরোধী বামপন্থী, কংগ্রেসী নেতা।

 

বাস্তবের কৃষকরা নিজেরদের বাড়িতে রয়েছেন, মাঠে নিজেদের কাজ করছেন অন্যদিকে এই নেতারা কৃষকদের নামে দিল্লীতে উৎপাত শুরু করেছে। জানিয়ে দি, আজ এই নেতারা কৃষকদের নাম উৎপাত করছে কিন্তু কংগ্রেস ও JDS মিলিত সরকার কর্ণাটকে কৃষকদের গুন্ডা বলেছেন এবং কৃষকদের ঋণ মাফ করা হবে না বলে জানিয়েছে। শুধু এই নয় ঋণ না মেটাতে পারলে জেলে ঢুকিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কংগ্ৰস JDS সরকার। অবশ্য এই সমস্থ ইস্যুতে এই নেতারা মুখে লাগাম লাগিয়ে মৌনরূপ ধারণ করেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close