ক্যান্সারে আক্রান্ত গোয়া মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিক্কর অক্সিজেন সিলিন্ডার সহ পৌঁছে গেলেন ব্রিজের কাজ দেখতে !

কয়েক বছর আগে গোয়াতে বিধানসভা নির্বাচন হয়েছিল। সেখানে সরকার গঠন করেছিল বিজেপি। তারপর সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে বেঁছে নেওয়া হয়েছিল মনোহর পারিক্কর কে। তিনি মুখ্যমন্ত্রী হবার পর থেকেই গোয়ার চেহারা পাল্টে যেতে লাগল। দারুন কাজ করে সমস্ত গোয়াবাসীর নয়নের মনি হয়ে উঠেছিল এই মনোহর পারিক্কর। তার কাজের প্রশংসা গোয়ার বিরোধী দলের নেতারা পর্যন্ত করেছিল। তিনি নিজের কাজের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে একটা আলাদা জায়গা করে নিয়েছিলেন।কিন্তু এই মুহূর্তে শারীরিক অসুস্থতায় জরর্জরিত হয়ে পড়েছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিক্কর মহাশয়। মনোহর বাবুর হয়েছে সবচেয়ে ভয়ংকর রোগ ক্যান্সার। আর এই ক্যানসারের জন্যই মনোহর বাবু এই মুহুর্তে শারীরিক ভাবে খুবই দুর্বলতা অনুভব করছেন।

কিন্তু মনোহর বাবুর মধ্যে রয়েছে এক আলাদা দেশভক্তি, রাজ্যের মানুষের প্রতি দায়িত্ববোধ। কারণ এই চরম অসুস্থ শরীর নিয়েও তিনি করে চলেছেন অনবরত কাজকর্ম। অসুস্থতার দোহাই দিয়ে নিজের কাজে ফাঁকি দিয়ে নারাজ এই দেশপ্রেমিক মুখ্যমন্ত্রী। কারণ গোয়াতে এখন তৈরি হচ্ছে তৃতীয় ম্যান্ডভি সেতু এবং জুয়াড়ি সেতু আর এই সমস্ত সেতুর কাজ ঠিকমতো চলছে কি না সেই খবর নেওয়ার জন্য রবিবার গোয়াতে সেই স্থানে পৌঁছে যান মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিক্কর। এমনই এক ছবি ক্যামেরা বন্দি হয়েছে সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরায়।এই ছবিতে যে দৃশ্যটি ফুটে উঠেছে সেটা হল রাজ্যের বিভিন্ন ব্রিজের কাজকর্মের ব্যাপারে পিডব্লিউডি আধিকারিকদের সাথে কথাবার্তা বলছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিক্কর। সেই সাথে ছবিতে দেখা যায় যে, মনোহর পারিক্করের নাক দিয়ে একটা পাইপ বের হয়েছে এবং সেটা হচ্ছে তার চিকিৎসারই একটা পার্ট। এর ফলে সহজেই বোঝা যাচ্ছে যে এই মুহূর্তে মনোহর পারিক্করের শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। আর সেই ছবি তার কথাবার্তা এবং চেহারা দেখেও স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছিল। কিন্তু সবচেয়ে অবাক করা ব্যাপার এটাই যে শারীরিকভাবে উনি যতই দুর্বল হোক না কেন তার কাজের মধ্যে সেই প্রভাব একটুও পড়তে দেন নি। অন্য একটি ছবিতে দেখা গিয়েছে যে, মনোহর বাবু ব্রিজের উপর থেকে নীচের দিকে ঝুঁকে সমস্ত কাজকর্ম দেখে নিচ্ছেন।

এমনিতে এতদিন যেসমস্ত ছবি দেখা গিয়েছে সেগুলি হয় উনার বাড়ির ভেতরে উনি শুয়ে রয়েছে নাহলে উনি হাসপাতালে রয়েছেন। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে তাকে দেখা যাচ্ছে কোনো না কোনো কাজের জায়গায়। অর্থাৎ এর থেকে এটা পরিস্কার ভাবে বোঝা যাচ্ছে যে শারীরিক অসুবিধা হলেও উনি বাড়িতে বসে সময় নষ্ট করতে চান না। দেশের হয়ে কাজ করে যাওয়ায় উনার জীবনের মূল লক্ষ্য। মনোহর বাবুকে শনিবার দেখা যায় যে, উনি গোয়ার উন্নতির ব্যাপারে বিশেষ ভাবে সচেতন হয়ে একটি বৈঠক করেছেন কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রীর সাথে। এই ছবি উনি নিজের টুইটারে পোস্ট করে জানিয়েছেন।এছাড়াও উনি দেশের কারিগরি মন্ত্রীর সাথে কথা বলে গোয়াতে নুতন নুতন কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার জন্য আবেদন জানান। এবং সেই সাথে এটাও জানিয়েছেন যে, সেই সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট আসনের মধ্যে ৪০ শতাংশ আসন গোয়ার ছাত্রছাত্রীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।

এই ব্যাপারে সমস্ত খবর উনি নিজের টুইটারে প্রকাশ করে জানাচ্ছেন। এর থেকে এটাই স্পষ্ট হয়ে যায় যে মনোহর বাবুর মুখ্যমন্ত্রী দেশের সকল জায়গায় দরকার যিনি নিজের শরীরের আগেও রাজ্যের মানুষের কথা ভাবেন। ক্যান্সারের মত রোগ কে গুরুত্ব না দিয়ে দেশের কাজে নিজেকে পুরোপুরি ভাবে সমর্পণ করে দিয়েছেন।
#অগ্নিপুত্র

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close