রামজন্মভূমিতে নামাজ পড়তে চাওয়ায় ইসলামিক গ্যাং কে সাজা দিল হাই কোর্ট! ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করে, পিটিশন খারিজ করলো আদালত।

রামজন্মভূমি অযোধ্যা নিয়ে হিন্দু সমাজ তাদের ধর্য্য ধরে রেখেছে। কিন্তু দেশের সেকুলার, কট্টরপন্থী ও পাকিস্থানপ্রেমীরা হিন্দুদের ধর্য্য নিয়ে খেলা করতে শুরু করেছে। বিশ্বে হিন্দুদের নাম খারাপ করার জন্য সেকুলারপন্থীরা লাগাতার হিন্দুদের উস্কানি দেওয়ার চেষ্টা করছে। ইসলামিক কট্টরপন্থী গ্যাং বার বার হিন্দুদের ধর্য্যের পরীক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করছে যার প্রমান মিললো আবারো। বিগত সপ্তাহে ইসলামিক কট্টরপন্থীরা অযোধ্যা নিয়ে বুলন্দশহরে তান্ডব দেখিয়েছে। আর এখন একটা ইসলামিক গ্যাং অযোধ্যার রাম জন্মভূমিতে নামাজ পড়ার জন্য লখনউ স্থিত প্রয়াগ হাইকোর্টে পিটিশন দায়ের করা হয়েছিল। এই ইসলামিক গ্যাং এর নাম আল রহমান ট্রাস্ট।

এই ট্রাস্ট আদালতের সামনে আর্জি দিয়েছিল যাতে রামজন্মভূমিতে তাদেরকে নামাজ পাঠ করার অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু লখনউ হাই কোর্ট এই ইসলামিক কট্টরপন্থী গ্যাংকে সঠিক শিক্ষা দিয়েছে। আদালত এই ইসলামিক উন্মাদী গ্যাং এর পিটিশন খারিজ করার সাথে সাথে ৫ লক্ষ টাকার জরিমানা লাগিয়েছে।

কোর্ট বলেছে, এই ইসলামিক শুধুমাত্র সাম্প্রদায়িকতা ছড়ানোর জন্য এই রকম আর্জি লাগিয়েছিল। এই পিটিশনের কোনো আধার ভিত্তি নেই, কোর্টের সময় নষ্ট করেছে এই ইসলামিক গ্যাং।কোর্টের এই ভালো সিদ্ধান্তের পর ইসলামিক গ্যাংগুলি ভুল ভালো আর্জি করার আগে অবশ্যই ভাববে। সাধারণ হিসেব অনুযায়ী ভারতের জমির উপর ইসলামের কোনো অধিকার নেই।

কারণ ইসলাম ভারতের নয়, বিদেশ থেকে আগত ধৰ্ম। কিন্তু কট্টরপন্থীরা হিন্দুদের চাপে ফেলতে, সাম্প্রদায়িকতা ছড়ানোর উদ্দেশ্যে আদালতে এই সমস্থ আর্জি করে। অযোধ্যায় জমি ভারতের তথা হিন্দুদের, বাবর তার পূর্বপুরুষদের জমি নিয়ে এখানে আসেনি। তাই ওই জমির উপর নামাজ পড়ার আর্জি সম্পূর্ন ভিত্তিহীন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close