‘মমতা ব্যানার্জী ভারত ছাড়ুন” লিখে পোস্টকার্ড পাঠালো অযোধ্যার পুরোহিতেরা!



অযোধ্যায় সাধু সন্তেরা মমতা ব্যানার্জীকে (Mamata Banerjee) শ্রী রাম লেখা পোস্টকার্ড পাঠানো শুরু করেছেন। তপস্বী ছাউনিতে ডঃ রাম বিলাস দাস বেদান্তি এবং স্বামী পরমহংস দাস বৃহস্পতিবার মমতা ব্যানার্জীর সুবুদ্ধির জন্য বুদ্ধি-শুদ্ধি যজ্ঞ করেন। এর সাথে দেবী শক্তির যজ্ঞের মাধ্যমে অযোধ্যা মন্দির তাড়াতাড়ি নির্মাণ করার জন্য প্রার্থনা করা হয়। তপস্বী ছাউনির মহন্ত স্বামী পরমহংস দাস পোস্টকার্ডে লেখেন, ‘ মমতা ব্যানার্জী, আপনি হয় জয় শ্রী রাম (Jai Shri Ram) এর বিরোধিতা ছাড়ুন, নাহলে ভারত ছাড়ুন।”

এছাড়াও ‘জয় শ্রী রাম” ধ্বনি নিয়ে আপত্তি তোলা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর সুবুদ্ধির জন্য তপস্বী ছাউনিতে বুদ্ধি-সুদ্ধি যজ্ঞ করা হয়। এই যজ্ঞতে মুখ্য পণ্ডিত ছিলেন, শ্রীরাম জন্মভূমি ন্যাস এর বরিষ্ঠ সদস্য ডঃ রাম বিলাস দা বেদান্তি এবং স্বামী পরমহংস দাস। ওই যজ্ঞে সাধু সন্তেরা প্রভু রামের বিরোধিতা করার জন্য মমতা ব্যানার্জী সুবিদ্ধি কামনা করেন।

যজ্ঞের পর ডঃ রাম বিলাস দাস বেদান্তি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে পাঠানোর জন্য একটি পোস্টকার্ডের মধ্যে  “শ্রী রাম” নাম লেখেন। এরপর ওই পোস্টকার্ড পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে পোস্ট করা হয়। এর সাথে সাথে বেদান্তি সবাইয়ের কাছে আবেদন করে মমতা ব্যানার্জীকে ‘শ্রী রাম” লেখা পোস্টকার্ড পাঠাতে বলেন।

তপস্বী ছাউনির মহন্তি পরমহংস দাস বলেন, বুদ্ধি-শুদ্ধি যজ্ঞের সাথে সাথে দেবী শক্তির যজ্ঞের মাধ্যমে মন্দির নির্মাণের বাধা দূর করার জন্য প্রার্থনা করা হয়। দেবী মায়ের কাছে কেন্দ্র সরকারের ইশ্বরনীয় শক্তির জন্য প্রার্থনা করা হয়। সন্তেরা জানান, কেন্দ্র সরকার কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা খতম করে, জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ আইন বানাক। এর সাথে সন্তেরা বলেন, এদের রামের বিরোধীদের কোন যায়গা নেই।

তছারাও বারানণসীর পুরোহিতেরা মমতা ব্যানার্জীকে রামচরিতমানস পাঠান। বারাণসীর পুরোহিত বলেন,  তিনি ভবিষ্যতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একটি রামায়ণ পাঠাবেন। শুধু তাই নয়, দরকারে তিনি রামায়ণ ব্যাখ্যা করে মমতাকে বুঝিয়ে দিতেও রাজি। তাই নিজের ফোন নম্বরও পাঠিয়েছেন রামচরিতমানসের সঙ্গে পাঠানো চিঠিতে।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close