মুকুল রায়ের হাত ধরে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আরও এক বিধায়ক ও একটি পুরসভা



ফের বড়সড় ভাঙন শাসক দল তৃণমূলে। একদিকে মমতা ব্যানার্জী কলকাতায় বসে দলের কাউন্সিলরদের সাথে বৈঠক করছেন এবং আগামী পুর ভোটে লড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তখন অন্যদিকে মমতা ব্যানার্জীর দল ছেড়ে ১২ জন কাউন্সিলর যোগ দিলেন বিজেপিতে। ১২ জন কাউন্সিলরের বিজেপি যোগের পর তৃণমূলের হাত থেকে বনগাঁ পুরসভাও যেতে চলেছে।

তবে শুধু ১২ জন কাউন্সিলরকে দলে ঢুকিয়ে ক্ষান্ত হননি বিজেপি নেতা মুকুল রায়। এর সাথে সাথে তৃণমূলের বনগাঁ বিধানসভার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাসও আজ দিল্লীতে গিয়ে বিজেপিতে নাম লেখান। বনগাঁ পুরসভার ১২ জন কাউন্সিলর বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাসের অনুগামী বলেই পরিচিত। আজ তৃণমূল থেকে বিজেপিতে নাম লেখান সমস্ত কাউন্সিলর এবং বিধায়ককে দলের সদস্যতা দেন পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

দিল্লী বিজেপির অফিস থেকে বিজেপি নেতা বিজয়বর্গীয় বলেন, পশ্চিমবঙ্গে যেমন সাত দফায় নির্বাচন হয়েছিল। তেমনই একে একে সাত দফায় ভেঙে পড়বে তৃণমূল। এটা মাত্র দুটি দফা হল। আরও পাঁচ দফা বাকি আছে।

বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেন, ‘১২৮ পুরসভার মধ্যে ৬টি পুরনিগম রয়েছে বাংলায়। লোকসভা ভোটে ১০১টি পুরসভা ও ৪টি পুরনিগমে তৃণমূল কংগ্রেস হেরে গিয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস হেরেছে ১২১টি বিধানসভায়। ৩০টি বিধানসভা কেন্দ্রে ১-৩ হাজার ভোটে হেরেছি। সবমিলিয়ে ১৫১টি বিধানসভা। সাতদফার মধ্যে প্রথম দফা এখনও চলছে। ধীরে ধীরে করছি, যাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঘাত কম লাগে।”



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close