ভয়ঙ্কর বৃষ্টিতে বাংলাদেশের ক্যাম্পে মৃত্যু হল ১০ রোহিঙ্গার! দুঃখ প্রকাশ বুদ্ধিজীবীদের।



মায়ানমারে উৎপাত করার পর, আতঙ্কবাদ ছড়ানোর পর বৌদ্ধরা এক হয়ে রোহিঙ্গাদের তাড়িয়ে দেশ থেকে বের করেছিল। বিশ্বের মুসলিম দেশগুলি এই রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে রাজি হয়নি। শেষমেষ ভারতের নেতাদের সাহায্যে বহু সংখ্যায়
রোহিঙ্গারা ভারতের সমস্ত রাজ্যগুলিতে ছড়িয়ে পড়ে। অন্যদিকে বাংলাদেশ বিশাল সংখ্যায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়। আতঙ্কবাদী রোহিঙ্গা মুসলিমদের দুঃখ কষ্ট দেখে বাংলাদেশিরা তাদের আশ্রয় দেয়। অন্তরাষ্টীয় জগৎ থেকে এই জন্য কোটি কোটি টাকার সাহায্যও নিয়েছে বাংলাদেশ। যদিও প্রায় প্রত্যেকদিন বাংলাদেশের ক্যাম্প থেকে রোহিঙ্গা মুসলিমরা এসে ভারতের স্থানীয় লোকজনের সাথে সামিল হচ্ছে।

এখন রোহিঙ্গা মুসলিম সংক্রান্ত একটা বড়ো খবর সামনে আসছে। রোহিঙ্গা মুসলিমরা এখন আবার প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখোমুখি হয়েছে। বাংলাদেশ তো দূর বাকি ইসলামিক দেশগুলিও রোহিঙ্গাদের সঠিকভাবে সাহায্য করতে সক্ষম হচ্ছে না। প্রচন্ড বৃষ্টিতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলি ভেসে যেতে শুরু হয়েছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, বাংলাদেশের প্রচন্ড বৃষ্টির কারণে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলি প্রভাবিত হয়েছে। ভূমিস্খলনের ফলে প্রায় ৫০০০ ক্যাম্প প্রভাবিত হয়েছে।
রোহিঙ্গা মুসলিমরা প্রচুর সংখ্যায় বাচ্চা উৎপন্ন করে। যার জন্য ক্যাম্পগুলিতে বেশি মাত্রায় ওষুধপত্র পৌঁছাতে হয়। বৃষ্টির কারণে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বাচ্চারাও পুষ্টিকর খাদ্য ও ওষুধ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

শুধু এই নয়, প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গার জীবন সংকটে পড়েছে। ১০ জন রোহিঙ্গা মুসলিম এখন অবধি মারা গেছে। বাংলাদেশের দক্ষিণপূর্ব এলাকায় উপস্থিত কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের জন্য থাকার ক্যাম্প করা হয়েছিল। সেই ক্যাম্পগুলি এখন ভেসে যেতে শুরু হয়েছে। বাংলাদেশের বুদ্ধিজীবী বর্গ এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করে সকলকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহবান করেছেন। প্রায় ৭৫০ এর বেশি শিক্ষাকেন্দ্রও প্রবল বৃষ্টির জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close