ICJ-এর নির্দেশের পর ঝুঁকল পাকিস্তান, এবার কূটনৈতিক সাহায্য পাবে কুলভূষণ যাদব



কুলভূষণ যাদব মামলায় দুদিন আগে নিজেদের জিদে বজায় রাখা পাকিস্তান এবার আন্তর্জাতিক আদালতের (ICJ) নির্দেশে মাথা ঝুঁকাতে বাধ্য হল। ICJ-এর রায়ের একদিন পর পাকিস্তান তাঁদের জেলে বন্দি ভারতীয় নৌসেনা প্রাক্তন অফিসারকে কুলভূষণ যাদব কে (Kulbhushan Jadhav) কূটনৈতিক সাহায্য দেওয়ার জন্য রাজি হয়ে গেলো। পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র বৃহস্পতিবার জানান, একটি দ্বায়িত্ববান দেশ হওয়ার কারণে পাকিস্তান কম্যান্ডার কুলভূষণ যাদবকে পাকিস্তানের আইন অনুযায়ী কূটনৈতিক সাহায্য করবে। যদিও তিনি এটির কোন সঠিক তারিখ বলেন নি। উনি বলেন, আমরা এই মামলায় কাজ শুরু করেছি। মুখপাত্র এও বলেন যে, কুলভূষণ যাদবকে ভিয়েনা চুক্তির আর্টিকেল ৩৬, প্যারাগ্রাফ ১(বি) এর অনুযায়ী ওনার অধিকারের ব্যাপারে জানানো হয়েছে।

এর আগে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এই ব্যাপারে ট্যুইট করে জানান, ‘আমরা আমাদের দেশের আইন অনুযায়ী কাজ করব। ICJ কুলভূষণ কে মুক্তি দেওয়া অথবা ভারতের হাতে তুলে দেওয়া নিয়ে কোন নির্দেশ দেয়নি। এই সিদ্ধান্তের সন্মান জানানো উচিত। যাদব পাকিস্তানের কাছে দোষী, পাকিস্তান এই ব্যাপারে তাঁদের আইন মেনেই কাজ করবে।” পাক বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেন, ‘যাদবকে পাকিস্তানেই রেখে দেওয়া উচিত। আর ওনার সাথে পাকিস্তানের আইন অনুযায়ীই ব্যাবহার করা উচিত।” উনি ট্যুইট করে দাবি করেন, ‘ICJ-তে পাকিস্তানের জয় হয়েছে। ভারত যাদবের মুক্তি চেয়েছিল, যেটা হয়নি। এরপরেও যদি তাঁরা এটাকে নিজেদের জয় মনে করে, তাহলে শুভকামনা রইল।”

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের সৈন্য আদালতে ফাঁসির সাজা ঘোষণা করা কুলভূষণ যাদবকে কূটনৈতিক সাহায্য দেওয়ার ব্যাপারে পাকিস্তান বরাবরই না করে এসেছিল। ভারত সরকারের বারবার আবেদনের পরেও যাদবের মা এবং তাঁর স্ত্রীকে তাঁর সাথে দেখা করার সুযোগ করিয়ে দিয়েছিল ঠিকই, কিন্তু ওনাদের সাথে চরম দুর্ব্যাবহার করা হয়েছিল। আর সেই ঘটনার নিন্দা শুধু ভারতই না, পাকিস্তানের মিডিয়াও করেছিল।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close