মৃত্যুর ১ ঘণ্টা আগে পাকিস্তানে আটক কুলভুষণ যাদবের জন্য নিজের দায়িত্ব পালন করে গেলেন সুষমা স্বরাজ।


প্রাক্তন বিদেশ মন্ত্রী তথা ভারতীয় জনতা পার্টির বরিষ্ঠ নেত্রী সুষমা স্বরাজ পাকিস্তানের জেলে বন্দি ভারতীয় নৌসেনার অবসরপ্রাপ্ত অফিসার কুলভূষণ যাদবের মামলা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন। আর এই কারণেই উনি বিদেশ মন্ত্রী থাকাকালীন কুলভূষণ যাদব মামলা নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতে আইনজীবী হরিশ সালভের সাথে লাগাতার যোগাযোগ করতেন। শোনা যাচ্ছে যে, মৃত্যুর এক ঘণ্টা আগে হরিশ সালভেকে ওনার পারিশ্রমিক ১ টাকা দেওয়ার জন্য ডেকেছিলেন। হরিশ সালভে নেদারল্যান্ডের হেগ-এ আন্তর্জাতিক আদালতে কুলভূষণ যাদবের মামলা মাত্র এক টাকা পারশ্রমিক নিয়ে লড়েছিলেন।

সুষমা স্বরাজের মৃত্যুর পর হরিশ সালভে একটি টিভি চ্যানেলে কথা বলার সময় বলেন, সুষমা স্বরাজ ওনার সাথে মৃত্যুর এক ঘণ্টা আগেই কথা বলেছিলেন। উনি বলেছিলেন, ‘৮ঃ৩০ নাগাদ প্রাক্তন বিদেশ মন্ত্রীর সাথে আমার কথা হয়। সেটা অনেক ভাবাত্মক কথাপকোথন ছিল। ফোনে সুষমা স্বরাজ আমাকে বলেছিল, এসে আমার সাথে দেখা করো। তুমি যেই কেস জিতেছ, তাঁর জন্য তোমার পারিশ্রমিক হিসেবে আমার থেকে এক টাকা নিয়ে যাও।” হরিশ বলেন, ‘আমি ওনাকে বলি, হ্যাঁ আমার এই পারিশ্রমিক আমি অবশ্যই নেব। তখন উনি আমাকে পরের দিন সন্ধ্যে ৬টার সময় যেতে বলেন।”

প্রসঙ্গত, পাকিস্তান কুলভূষণ যাদবকে ২০১৬ সালে মার্চ মাসে গ্রেফতার করেছিল। ২০১৭ সালে এপ্রিল মাসে পাকিস্তানের সেনা আদালতে গোয়েন্দা গিরির জন্য তাঁকে ফাঁসির সাজা শোনানো হয়েছিল। এই মামলায় পাকিস্তান ভারতীয় আধিকারিকদের কুলভূষণের সাথে সাক্ষাৎ এর অনুমতি দিয়েছিল না। পাকিস্তানের সেনা আদালতে যাদবকে মৃত্যুর সাজা শোনানর পর, ভারত এই মামলা আন্তর্জাতিক আদালতে তোলে এবং সেখানে হরিশ সালভে মাত্র এক টাকার পারিশ্রমিকের বিনিময়ে এই মামলা লড়েন।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close