বলিউড থেকে কোটি কোটি টাকা ইনকাম করে এখন ভারতের বিরোধিতা করলো পাকিস্তানি গায়ক আতিফ আসলাম।


নরেন্দ্র মোদি সরকার গত কিছু দিনে ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেন। গত সোমবার কেন্দ্র সরকার রাষ্ট্রপতির আদেশের পর  জম্মু কাশ্মীর রাজ্যের অনুচ্ছেদ 370কে সরিয়ে দেয়। এই নির্ণয়ের পর লাদাখকে জম্মু কাশ্মীর দিয়ে আলাদা করে দেওয়া হয় আর দুজনে আলাদা আলাদা কেন্দ্র শাসিত প্রদেশ হিসাবে থাকবে। দেশের মানুষজন সরকারের এই সিদ্ধান্তের মন থেকে স্বাগত করছে সেখানে প্রতিবেশী দেশে এই সিদ্ধান্তের কারণে তাদের ক্ষেপে যাওয়া রূপ দেখতে পাওয়া গেছে। পাকিস্তান সরকার ও মিডিয়ার পর এবার পাকিস্তান শিল্পীরাও ভারতের এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছে। ভারতীয় ফ্যানসরা এই শিল্পীদের ভালো করে ক্লাস নেয়। এই লিস্টে মাহিরা খান, মাওবরা হোকেনের পর গায়ক আতিফ আসলামও এসে গেছে। ভারত থেকে কোটি কোটি টাকা কমানোর পর এরা ভারতের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে শুরু করেছে। ধারা 370 বিলুপ্ত নিয়ে এরা আওয়াজ তুলেছে।

আসলে আতিফ আসলাম মঙ্গলবার (৬ই আগস্ট) হজ যাত্রার জন্য গেছিলেন। যাওয়ার আগে তিনি ফেসবুকে একটি পোস্ট শেয়ার করে যেটায় তিনি লেখেন “আপনাদের সবার সাথে কিছু বড় ভাগ করতে গিয়ে খুব আনন্দ হচ্ছে। খুব তাড়াতাড়ি আমি নিজের জীবনের খুব বড় একটি যাত্রার জন্য বেরোবো। হজ এর জন্য বেরোনোর আগে আমি সবার কাছে ক্ষমা চাইছি, ফ্যানস, ফ্যামিলি আর ফ্রেন্ডস। কাউকে কষ্ট দিয়ে থাকলে প্লিজ ক্ষমা করে দিও। নিজেদের প্রার্থনায় আমাকে মনে রেখো। এতটা অব্দি তো ঠিক ছিল কিন্তু এরপর আতিফ আসলাম যা লিখলো তা নিয়ে হিন্দুস্থানের লোকেদের উত্তেজিত করে তোলে। আতিফ আসলাম লেখেন “কাশ্মীরি লোকদের উপর হওয়া অত্যাচারের আমি কড়া শব্দে নিন্দা করি। আল্লাহ কাশ্মীরি ও পৃথিবীর সব নির্দোষদের উপর নিজের আশীর্বাদ দিতে থাকুক।

ওনার এই পোস্টে ভারতের সোশ্যাল মিডিয়া ইউজার্স তাকে কড়া জবাব দেয়। একজন ইউজার লেখেন ” আপনি নিজের দেশের চিন্তা করুন আমাদের দেশে জন্য মোদি জি আছেন।” তারপর আরেকজন ইউজার্স লেখেন “পাকিস্তান শিল্পীদের পরামর্শের দরকার নেই, সে ভারতে যাই চলুক না কেন”, আরেকজন ইউজার্স লেখেন “আজকে আপনি আপনার একটি ফ্যান হারালেন।”

এর আগে পাকিস্তান এক্টট্রেস মাহিরা খানও কাশ্মীরি বিষয় টুইট করেছিল যার পরে সোশ্যাল মিডিয়াতে ওনারও অনেক বিরোধ করা হয়।মাহিরা টুইট করেছিল “এটা কি সত্যি যে বিষয় গুলিকে আমরা উদ্দেশ্য করতে চাই না তাদের খুব সহজে ব্লক করে দেওয়া যায়? এটি বলি তে টানা রেখার দিয়ে পরে আছে, এটি সেই নির্দোষ লোকেদের সাথে জড়িত যারা নিজের জীবন  হারিয়েছে। স্বর্গ জ্বলছে আর আমরা চুপচাপ চোখের জল ফেলছি। তারপর আরেকজন পাকিস্তান এক্টট্রেস ও বিগবস 4 এর কনটেসটেন্ট থাকা বিনা মল্লিক জম্মু কাশ্মীরের বিষয় ভারত বিরোধী টুইট করে আর বলে ” ভারত সব আন্তঃরাষ্ট্রীয় নিয়মকে ভাঙছে। ৭০ বছর ধরে ভারত কাশ্মীরকে দাবিয়ে রাখছে।

জানিয়েদি সব পাকিস্তান শিল্পী ভারতে টাকা কামায় এবং ভারতে অর্জন করা ধন আমাদের সবথেকে বড় শত্রুদেশ পাকিস্তানকে ট্যাক্স হিসাবে দেয় এবং এই টাকা দ্বারাই পাকিস্তান নিজেদের ওখানে সন্ত্রাসীদের ফাইন্যান্সিং করে। আসলে বেশির ভাগ ট্যাক্স ISI, পাকিস্থানের প্রমুখ বুদ্ধিমত্তা এজেন্সি এবং পাক আর্মির খাতায় যায়। এরা সবাই জৈস-এ-মহম্মদ ও লস্কর-এ-তৈবার মতো সন্ত্রাসী সংগঠনকে ফাইনেনসিং সাহায্য প্রদান করে।

এই শিল্পীরা এখানে কেবল ধন অর্জন করতে আসে এবং নিজের দেশের জন্য আনুগত্য থাকে। পাক শিল্পীরা তো ভারতীয় জোয়ানদের শহীদ হয়ে যাওয়ায় কোনো রকম রোক করেনি। পাক কে আন্তঃরাষ্ট্রীয় স্তরে ভিন্ন করতে হলে আমাদের আতিফ আসলামের মতো শিল্পীদের বহিস্কার করতে হবে। ভারত সরকারের কাশ্মীরের বিষয় নেওয়া সিদ্ধান্ত প্রশংসনীয় এবং এটি আমাদের দেশের অন্তর্গত মামলা। এইসব বাইরের শিল্পীদের কোনো অধিকার নেই এই সব বিষয় কথা বলার বা নিজের মতামত দেওয়ার।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close