বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করা পাঁচ জন বীর পাইলটের নাম প্রকাশ্যে আনল বায়ুসেনা, বীর চক্র পেতে চলেছেন ওনারা


ভারত সরকার ঘোষণা করেছে যে, পাকিস্তানের সীমা পার করে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করা পাইলটদের বীর পদক দিয়ে সন্মান জানাবে। স্বাধীনতা দিবসের শুভ অবসরে উইং কম্যান্ডার অমিত রঞ্জন, স্কোয়ার্ডন লিডার রাহুল বসোয়া, পঙ্কজ ভুজডে, বি.কে.এন রেড্ডি, শশাঙ্ক সিনহাকে বীরত্বের মেডেল দেওয়া হবে। এই বায়ুসেনার পাইলটেরা মিরাজ ২০০ যুদ্ধ বিমানের পাইলট। এই বীর পাইলটেরা পাকিস্তানের সীমান্তে ঢুকে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করে জঙ্গি শিবির ধ্বংস করে দিয়ে এসেছিল।

আরেকদিকে এয়ার স্ট্রাইকের পর পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতীয় বায়ুসেনার যুদ্ধ বিমান মিগ-২১ দিয়ে পাকিস্তানের অত্যাধুনিক যুদ্ধ বিমান এফ-১৬ কে ধ্বংস করা উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে স্বাধীনতা দিবসে বীর চক্র দিয়ে সন্মানিত করা হবে। উল্লেখনীয়, বীর চক্র পদক যুদ্ধের সময় বাহাদুরির জন্য দেওয়া তৃতীয় সবথেকে বড় সন্মানিয় পদক। প্রথম স্থানে পরমবীর চক্র, এবং দ্বিতীয় স্থানে মহাবীর চক্র পদক আছে।

অভিনন্দনের সাথে বায়ুসেনার স্কোয়ার্ডান লিডার মিন্টি আগরবালকে যুদ্ধসেনা মেডেল দিয়ে সন্মানিত করা হবে। ওনাকে এই মেডেল ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারত আর পাকিস্তানের বায়ুসেনার মধ্যে ডগ ফাইটের সময় অতুলনীয় ফ্লাইট কন্ট্রোলারের কাজের জন্য দেওয়া হবে।

এর মধ্যে আরেকটি খুশির খবর হল, বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমান আবারও মিগ-২১ নিয়ে আকাশে উড়তে চলেছেন। ব্যাঙ্গালুরুর ফিটনেস ক্যাম্প থেকে উনি ফিট হওয়ার সার্টিফিকেট পেয়ে গেছেন। এবার সামান্য কিছু অফিসিয়াল কাজের পর বায়ুসেনার কোর্স কমপ্লিট করে উনি আবার শত্রুদের পাকিস্তানের ঘুম কাড়তে আকাশে উড়ে যাবেন। এর আগে তিনি শ্রীনগরে কর্মরত ছিলেন, কিন্তু সুরক্ষার কারণে ওনাকে শ্রীনগর থেকে রাজস্থানে বায়ুসেনার এয়ার বেসে মোতায়েন করা হয়।





Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close