সৌদি আরব থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হলো ৪০ হাজার পাকিস্তানি নাগরিককে! হতাশ ইমরান খান।


দেশে সন্ত্রাসবাদের কারণে পাকিস্তান সারা বিশ্বে কুখ্যাত হয়ে আছে। পাকিস্তানিদের অপরাধমূলক প্রবণতার কারণে তাদের বিশ্বের সমস্ত দেশেই একজন অপরাধীর চোখে দেখা যায়। এসব কারণে বিদেশে পাড়ি দেওয়া পাকিস্তানি নাগরিকদের দেশ থেকে বহিষ্কারও করা হয়। সৌদি আরবে এমনই কিছু ঘটেছে। যেখানে সৌদি প্রশাসন তাদের দেশে কর্মরত প্রায় ৪০ হাজার পাকিস্তানি নাগরিককে বহিষ্কার করেছে।লক্ষণীয় বিষয় হলো যে সৌদি আরবে মাদক পাচার, জালিয়াতি, চুরি, সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ, হামলার মতো অপরাধে পাকিস্তানি নাগরিকদের জড়িত পাওয়া গেছে। যার কারণে সৌদি আরব প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সৌদি আরব মিডিয়া জানিয়েছে, অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রকের এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেছেন যে নিরাপত্তার কারণে দেশ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানিদের। সৌদি আরবের এই পদক্ষেপ দ্বারা প্রকাশ পায় যে মুসলিম দেশগুলিতেও পাকিস্তানের পরিস্থিতি মর্যাদা খুব খারাপ। এই পদক্ষেপের আগে সৌদি আরবের প্রশাসন পাকিস্তানের ডাক্তারদের ভুয়া ঘোষণা করে সৌদি ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছিল। সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রকও পাকিস্তানের মাস্টার অফ সার্জারি এবং মাস্টার অফ মেডিসিন ডিগ্রির স্বীকৃতি বাতিল করে দিয়েছে। আমরা যদি সৌদি আরবের পরিসংখ্যান বিবেচনা করি তবে সৌদি আরবের প্রশাসন ২০১২ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে প্রায় ২,৪৩,০০০ পাকিস্তানী কর্মীকে দেশ থেকে বহিষ্কার করেছিল। এখন সৌদি প্রশাসনের অপরাধ বা ক্রাইম গ্রাফে পাকিস্তানি নাগরিকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, যার ফলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন বিশ্বে পাকিস্তানিদের সন্মান আরো হ্রাস পেয়েছে। কোনো অপরাধমূলক কাজ হলেই পাকিস্তানিদের ধরা হচ্ছে। কারণ সমস্ত অসামাজিক কাজের সাথে কট্টরপন্থীরাই জড়িত থাকে।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close