কুর্তা ও মিষ্টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাথে দেখা করলেন মমতা ব্যানার্জী! রাজ্যের নাম পরিবর্তন নিয়ে হলো আলোচনা।



বুধবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৈঠক করেছেন। দুই নেতা একে অপরের সাথে প্রচণ্ড উৎসাহের সাথে দেখা করেন। প্রধানমন্ত্রীর আবাসে এই বৈঠক হয়েছে। এই সময়ে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী মোদীকে কুর্তা এবং মিষ্টি উপহার প্রদান করেন। প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাথে দেখা করার পরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা ভাল হয়েছে। দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পরে তার সাথে আমার দেখা হয়নি। আমি রাজ্যের জন্য 13500 কোটি টাকা দাবি করেছি। এছাড়াও, রাজ্যের নাম পরিবর্তনের দাবিও রেখেছি। আমরাও উনার পরামর্শ নিতেও রাজি আছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার সভাটিকে চেয়ার টু চেয়ার সভা বলে মন্তব্য করেন।

মমতা ব্যানার্জী বলেন যে এটি কোনও রাজনৈতিক সভা ছিল না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের সাথে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। তিনি বলেছিলেন যে অমিত শাহ সময় দিলে আমি আগামীকালও উনার সাথেও দেখা করবো। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাথে দেখা করার জন্য সময় চেয়েছিলেন। মমতা 20 সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দিল্লিতে রয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার দু’ নেতার সাক্ষাৎ হওয়ার কথা ছিল। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্মদিনে পূর্ব নির্ধারিত অনুষ্ঠানে কারণে এই বৈঠকটি সম্ভব হয়নি।

লোকসভা নির্বাচনের সময় প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে তুমুল লড়াই হয়েছিল। নরেন্দ্র মোদী কেন্দ্রে আসার পর থেকেই এই দুই নেতার সম্পর্ক ভাল ছিল না। তবে এই তিক্ততার মধ্যেও মমতা  বছরে প্রধানমন্ত্রী মোদীর কাছে দু-একটি কুর্তা উপহার হিসেবে পাঠিয়েছেন। এই তথ্য প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী নিজেই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আগেও বেশ কয়েকবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে সাক্ষাৎ করা এড়িয়ে গেছেন। মে মাসে দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচনে জয়ের পরে নরেন্দ্র মোদীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশ নেননি মমতা ব্যানার্জী। পরবর্তীকালে, মমতা জুনে নীতি আয়োগ এর সভায় অংশ নেননি।

তারপরে মমতা ‘এক দেশ এক নির্বাচন’ ইস্যুতে ডাকা সভায় অংশ নেননি। নির্বাচনের আগেই প্রধানমন্ত্রী মোদী মে মাসে বলেছিলেন যে ফনির বিষয়ে আলোচনার জন্য তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে 2 বার ফোন করেছিলেন, কিন্তু তাঁর সাথে যোগাযোগ করা যায়নি। তখন মমতা বলেছিলেন যে তিনি মোদীকে দেশের প্রধানমন্ত্রী মনে করেন না। তবে এখন উনি এসে প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করলেন ও রাজ্যের তরফ থেকে দাবি রাখলেন।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close