বাবুল সুপ্রিয়কে সাথে নিয়ে এক গাড়িতে রাজ্যপাল! গাড়ির সামনে উপদ্রব করছে বামপন্থী ছাত্রছাত্রীরা।



বাবুল সুপ্রিয়কে আটক করে উৎপাত করেছিল বাম সমর্থকরা। বাবুল সুপ্রিয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পৌঁছে ছিলেন। কিন্তু উনাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছিল বামপন্থী চিন্তাধারার ছাত্ররা। এবিভিপির নবীন বরণ অনুষ্ঠানে একজন সংগীত শিল্পী হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বাবুল সুপ্রিয়।  অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে আসা বাবুল সুপ্রিয়কে প্রথমে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। উনাট চুল ধরে টানা হয়, জামা ধরে টেনে হেনস্থা করা হয়। বাবুল সুপ্রিয়কে কোনোভাবেই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেরোতে দেওয়া হচ্ছিল না।

তবে শেষমেষ রাজ্যের রাজ্যপাল পৌঁছে যান বিশ্ববিদ্যালয়। রাজ্যপাল জগদ্বীপ ধনখড় বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছানো মাত্র বিক্ষোপের সম্মুখীন হন। তবে উনি বাবুল সুপ্রিয়কে সাথে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস এর বিক্ষোপের মুখ থেকে বের করে গাড়িতে তোলেন। বাম সমর্থক ছাত্র ছাত্রীরা বাবুল সুপ্রিয়কে আটক করে উৎপাত চালাচ্ছিল। খবর পাওয়া মাত্র রাজ্যপাল ক্ষুদ্ধ হয়ে উপাচার্যকে ফোন করেছিলেন। রাজ্যপাল জগদ্বীপ ধনখড় বলেন, কেন্দ্রীয়মন্ত্রীকে এইভাবে আটকানো যায় না। পলিশের সাহায্য নিয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে ক্যাম্পাস থেকে বের করে আনার কথা বলেন রাজ্যপাল। কিন্তু উপাচার্য পুলিশের সাহায্য নিতে পারেননি।

তাই শেষমেষ রাজ্যপাল নিজেই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস যাওয়ার সিধান্ত।নেন। রাজ্যপাল বাবুল সুপ্রিয়কে সাথে নিয়ে গাড়িতে উঠেন। কিন্তু গাড়ির সামনে বিক্ষোপ শুরু করেছে বামপন্থী মানসিকতা বর্বর উপদ্রবকারীরা। জানিয়ে দি রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান রাজ্যপাল বাবুল সুপ্রিয়কে সাথে নিয়ে বেরিয়ে যেতে চাইছেন। কিন্তু এতেও বাধা দিচ্ছে বামপন্থী ছাত্র। আজ পর্যন্ত দেশের কথাও এইধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা দেখা যায়নি। যা আজকের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে দেখা যাচ্ছে।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close