ভারত দেশ শুধু নিজের জন্য নয়, পুরো বিশ্বের জন্য কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রী মোদী।


ভারতে প্রথম গণিত শিক্ষার আবিষ্কার হয়েছিল যার দরুন পুরো বিশ্ব চলছে। ভারতের ঋষি আর্যভট্ট ত্রিকোণমিতি আবিষ্কার করেছিলেন যার উপর নির্ভর করে পুরো বিশ্বের নির্মাণ কাজ চলে। এমনকি বার অর্থৎ সোম বার থেকে রবিবার  এই ৭ দিনের আবিষ্কার ভারতের ঋষিমুনিরা করেছিলেন। সেই ৭ দিনের থেকে ১ টা বেশিদিন আর বিশ্বের কোনো দেশ খুঁজতে পারেনি। গ্রহ, নক্ষত্র, চন্দ্রগ্রহণ, সূর্য গ্রহণ এর আবিষ্কার ভারতে বহু প্রাচীন সময়ে হয়েছে। আজও যখন পুরো বিশ্ব গ্রহণের সময় জানার জন্য বিজ্ঞানের উপর তাকিয়ে থাকে, ভারতীয়রা তখন পঞ্জিকা খুলেই গ্রহণের তারিখ বলে দেয়। অর্থাৎ পুরো বিশ্বে ভারতের যা অবদান রয়েছে এমন অবদান কোনো দেশের নেই। প্রধানমন্ত্রী মোদী আজ আবার বিশ্বকে ইঙ্গিত দেন, যে ভারত পুরো বিশ্বের জন্য কাজ করছে শুধু নিজের জন্য নয়।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজ জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনকে সম্বোধন করেছেন। মোদী বলেছিলেন যে আমরা ভারতকে প্লাস্টিক থেকে মুক্ত করার জন্য প্রচার চালাচ্ছি। তিনি বলেছিলেন যে আগামী পাঁচ বছরে আমরা দেড় মিলিয়ন ঘরকে জল পরিষেবার সাথে সংযুক্ত করব।
প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন যে ভারত হাজার বছরের পুরানো সংস্কৃতি। আমরা সবার উন্নয়নে বিশ্বাসী। আমরা শুধু ভারতের পক্ষে নয়, বিশ্বের মঙ্গল কামনা করছি। আমাদের প্রচেষ্টা আমাদের দেশে সীমাবদ্ধ নয়।

পুরো বিশ্ব তাদের ফল পাবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশন শুরুর আগে বৃহস্পতিবার ইরানের রাষ্ট্রপতি হাসান রুহানির সাথে সাক্ষাত করেছেন। এ সময় দুই নেতা চাবাহার বন্দর ও এর গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করেন। দুই নেতা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয়ে আলোচনা করেছেন এবং অংশীদারি স্বার্থের আঞ্চলিক ও বিশ্বব্যাপী উন্নয়নের বিষয়ে মতামত ভাগ করেছেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বুধবার আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল প্যাসিয়ানের সাথে সাক্ষাত করেছেন।

জাতিসংঘের সুরক্ষা কাউন্সিলের স্থায়ী সদস্যপদের জন্য ভারতের দাবিকে ধারাবাহিকভাবে সমর্থন করার জন্য উনকে ধন্যবাদ জানান। বুধবার তাদের বৈঠককালে দুই দেশ তাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক পর্যালোচনা করে তাদের অবিচ্ছিন্ন প্রবৃদ্ধি নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। ভারত ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার শতাব্দী প্রাচীন  সম্পৰ্ক এর কথা স্মরণ করে দুই দেশের নেতা দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার কথা উল্লেখ করেন। আর্মেনিয়ার আইটি, কৃষি প্রক্রিয়াকরণ, ওষুধ, পর্যটন এবং অন্যান্য খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর উপর ভারতীয় কোম্পানির আগ্রহ বেশ ভালোই রয়েছে। এমত অবস্থায় দুই দেশের সম্পর্ক মজবুত হলে দেশের কোম্পানীগুলি লাভবান হবে।

প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, আতঙ্কবাদ পুরো বিশ্বের মানবতার জন্য একটা বড়ো চ্যালেঞ্জ যেটাকে উপড়ে ফেলার প্রয়োজন। আতঙ্কবাদের পাশাপশি আগামী  ভবিষ্যতে যে ইস্যু গুলি মানবজাতির জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠছে তার উপর চর্চা করেন। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, ভারত শুধু নিজের দেশের জন্য নয় পুরো বিশ্বের জন্য কাজ করছে। আর ভারতের দ্বারা কাজের লাভবান পুরো বিশ্ব হবে



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close