দারিদ্রতার হার অর্ধেক হওয়ায় ভারতের ভূয়সী প্রশংসা করল বিশ্বব্যাঙ্ক, সাথে দিলো কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ


১৯৯০ এর পর থেকে ভারতে দারিদ্রতার মামলায় পরিস্থিতি অনেক ভালো হয়েছে, এই সময়ে ভারতে দারিদ্রতার পরিমাণ অর্ধেক হয়েছে। ভারত বিগত ১৫ বছরে সাত শতাংশেরও বেশি আর্থিক বৃদ্ধি হাসিল করেছে। মঙ্গলবার বিশ্ব ব্যাঙ্ক এই মন্তব্য করেছে। বিশ্ব ব্যাঙ্ক আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভাণ্ডারের সাথে বার্ষিক বৈঠকে বলে, ভারত অত্যাধিক দারিদ্রতা দূর করা সমেত পরিবেশে বদল আনার মতো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে মহত্বপূর্ণ যোগদান করেছে। বিশ্ব ব্যাঙ্ক জানায়, ভারত বিগত ১৫ বছরে সাত শতাংশেরও বেশি আর্থিক বৃদ্ধি হাসিল করেছে। ১৯৯০ এর পর ভারতে দারিদ্রতার হার অর্ধেক হয়ে গেছে। এছাড়াও ভারতে বেশিরভাগ মানব বিকাশের সূচকগুলিও এগিয়েছে।

বিশ্ব ব্যাঙ্ক জানিয়েছে ভারতের বৃদ্ধির হার জারি থাকা তথা এক দশকে অতি দারিদ্রতা সম্পূর্ণ ভাবে মিটিয়ে ফেলবে বলে অনুমান। এছাড়াও দেশের উন্নতির যাত্রায় অনেক চ্যালেঞ্জ আসবে। বিশ্ব ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, ভারতকে এর জন্য সংশাধনের কার্যক্ষমতা বাড়াতে হবে। শহুরে এলাকায় সামুদায়িক অর্থব্যবস্থা আর গ্রামীণ এলাকায় কৃষি উৎপাদন বাড়িয়ে ভারতের কার্যক্ষমতা বাড়াতে হবে।

বিশ্ব ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, ভারতের অধিক মূল্যবরধক ব্যাবহারের জন্য জল আবণ্টন নিয়ে উন্নত জল প্রবন্ধন তথা বিভিন্ন এলাকায় জলের ব্যাবহারের মূল্য বাড়ানর জন্য সফল নীতির প্রয়োজন। এছাড়াও ২৩ কোটি মানুষ বিদ্যুৎ গ্রিডের সাথে ভালো মতো জড়িত না। দেশকে কম কার্বন উৎপাদনের বিদ্যুৎ উৎপন্ন কোর্টে হবে। বিশ্বব্যাঙ্ক জানিয়েছে, ভারতের দ্রুত আর্থিক বৃদ্ধির পরিকাঠামো বাড়াতে ২০৩০ পর্যন্ত অনুমান মতো জিডিপি ৮.৮ শতাংশ (প্রায় ৩৪৩ কোটি ডলারের বিনিয়োগ দরকার)।

 



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close