কেন্দ্রে মোদী ও রাজ্যে যোগী থাকায় রামমন্দির মামলার রায় আসা সম্ভব হয়েছে: নরসিংহানন্দ সরস্বতী, হিন্দু ধর্মগুরু।


কেন্দ্রে মোদী ও উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ৫০০ বছরের পুরনো বিতর্ক শেষ করে দেশের সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যা মামলার রায় দিয়ে দিয়েছে। দেশ একটা পুরানো ও জটিল সমস্যার সমাধান করে নিয়েছে। এবার দেশ ভবিষ্যত ও বর্তমানের নিত্য নতুন সমস্যা সমাধান করার সময় পাবে। এতদিন দেশ অযোধ্যা মামলায় এতটাই জড়িয়ে পড়েছিল যে দেশের অশান্তি, অস্থিরতা সৃষ্টির সাথে সাথে বিকাশেও বাধা হয়ে দাঁড়াতো। রাজনৈতিক, ধর্মীয় ও সামাজিকভাবে সংবেদনশীল এই মামলায় ৪০ দিনের ম্যারাথন শুনানির পরে ১৬ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট রায় সংরক্ষণ করেছিল। আদালত ৯ নভেম্বর ফাইনাল রায় দিয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের বিখ্যাত সন্ন্যাসী নরসিংহানন্দ সরস্বতী আদালতের রায় আসার জন্য কেন্দ্র ও উত্তরপ্রদেশ সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। উনি বলেছেন যদি কেন্দ্র ও রাজ্যে যদি শক্তিশালী সরকার না থাকতো তাহলে রায় আসা সম্ভব হতো না। কারণ দেশের সুরক্ষা একটা বড়ো বিষয় যাতে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে। আদালতের রায় আসার আগে দেশের সুরক্ষা ব্যাবস্থা কড়া করে দেওয়া হয়েছিল এবং গোয়েন্দা সংস্থাগুলিও সক্রিয় ছিল। নরসিংহানন্দ সরস্বতী বলেন আমি যোগী আদিত্যনাথজির সরকার ও মোদীজির সরকারকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

জানিয়ে দি, বিজেপি পার্টির সঙ্কল্পপত্রে ৩৭০ অপসারণের সাথে সাথে রাম মন্দির নির্মাণ একটা বড়ো ইস্যু ছিল। এখন আদালতের রায় আসার আসার সাথে মন্দির নির্মানের পথ প্রসস্থ হয়েছে। অন্যদিকে উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথের সরকার গড়ার আগে নির্বাচনের সময় উনি রামমন্দির নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছিলেন। যোগী আদিত্যনাথ বলেছিলেন, যদি প্রদেশে বিজেপি সরকার গঠন হয় তবে রাম মন্দির নির্মান হবে এটা নিয়ে সন্দেহ রাখার প্রয়োজন নেই। সেই দৃষ্টিকোন থেকে রাজ্য সরকারও তাদের পতিশ্রুতি পালনে সফল হতে চলেছে। যার জন্য যোগী সরকার ও মোদী সরকার উভয় জনগণের থেকে প্রসংশা কুঁড়িয়ে নিচ্ছে।



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close